এবার ডেঙ্গুর প্রকোপ নির্ভর এডিস মশা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের ওপর

প্রকাশিত: ২৬শে ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১১:১৭:৫৭ | আপডেট: ২৬শে ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১১:১৭:৫৭ 0
এবার ডেঙ্গুর প্রকোপ নির্ভর এডিস মশা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের ওপর

এবার ডেঙ্গুর প্রকোপ নির্ভর করছে এডিস মশা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমের ওপর। শহরের পাশাপাশি গ্রামেও চালাতে হবে কার্যক্রম। এমনটাই বলছে আইইডিসিআর। ঢাকায় মশা নিয়ন্ত্রণে এরই মধ্যে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন- ডিএসসিসি। তবে ডেঙ্গু প্রতিরোধে ব্যক্তি সচেতনতা জরুরি বলেও মত তাদের।

গেলো বছর ঢাকা সহ সারা দেশে ছড়িয়ে পড়ে, ডেঙ্গু জ্বর। এতে আক্রান্ত হন ১ লাখ ১ হাজার ৩৫৪ জন। সরকারি হিসাবে মৃত্যুর সংখ্যা ১শর বেশি।

সমালোচনার মুখে পড়ে, ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন। এই ইস্যু গড়ায় উচ্চ আদালতেও।

তবে এ বছর ডেঙ্গু জ্বরের প্রকোপ কেমন হবে, তা নিশ্চিত করে বলতে পারছে না রোগ তত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইন্সটিটিউট-আইইডিসিআর।

সংস্থাটি বলছে, সব কিছু নির্ভর করছে, মশা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে ওপর।

আইইডিসিআরের পরিচালক মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, গতবছর আমরা বেশিরভাগ দেখেছি সেরোটাইপ ৩। যদি অন্যকোন সেরোটাইপ না আসে সেক্ষেত্রে সেরোটাইপ ৩ এ আমরা আশা করছি যে আগের থেকে আমাদের ইমিউনিটি লেভেল বেড়েছে যার কারণে এটা একজনের থেকে আরেকজনের কাছে ছড়বে না।

আইইডিসিআরের পরামর্শ, এবার মশা নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রমে, গ্রামকে বেশি গুরুত্ব দেয়া উচিত।

সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, গ্রামগুলো আগের মত নেই, এখন আগের থেকে অনেক উন্নত হয়ে শহর-গ্রামের মিশ্রণ হয়ে গেছে। গ্রামে পানি জমা থাকার জায়গাগুলো আলাদা। আর তাই আমরা আমাদের সচেতনতা তথ্যগুলো গ্রামকে ফোকাস করে দেয়ার চেষ্টা করছি।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রি. জেনারেল শরীফ আহমেদের দাবি, এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে পর্যাপ্ত পদক্ষেপ নিয়েছেন তারা। প্রতিটি ওয়ার্ডেই ছেটানো হচ্ছে ওষুধ।

তিনি বলেন, আমাদের একটা টিম বাড়ি বাড়ি গিয়ে সোর্স খুঁজে বের করে রিডাকশনের কাজ করছে। এই মাস পর্যন্ত থাকবে, ১৫টি বাড়ি প্রতিদিন, প্রতিটি ওয়ার্ডে।

লগইন করুন


পাঠকের মন্তব্য ( 0 )